মুক্তি পেল ডি.সুধীর প্রোডাকশনসের প্রথম ছবি “SHESH CHITHI”-র ট্রেলার ও মিউজিক

কলকাতা প্রেস ক্লাবে পরিচালক তন্ময় রায়ের ছবি ‘শেষ চিঠি’-র ট্রেলার ও মিউজিক রিলিজ হল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ছবিটির প্রযোজক সুধীর দত্ত,পরিচালক তন্ময় রায়,অভিনেতা বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী,মৌবনী সরকার,গায়ক ঋক বসু,রাখী দত্ত সহ সিনেমাটিতে যুক্ত অন্যান্য ব্যক্তিরা।
ডি.সুধীর প্রোডাকশনসের নিবেদিত শেষ চিঠি’ ছবিটির মাধ্যমে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে প্রথমবার পদার্পণ করতে চলেছে এই প্রোডাকশন হাউস।
ছবিটিতে মোট চারটি গান রয়েছে।দুটি গান শোনা যাবে রাখীর গলায় যার মধ্যে একটি আইটেম গানে নবপ্রজন্মের গায়ক ঋকের সাথে শোনা যাবে রাখীর গলা। বাকি দুটি গান গেয়েছেন ইমন চক্রবর্তী ও রূপঙ্কর বাগচীর মতো অসাধারণ শিল্পী। সঙ্গীতে সুর দিয়েছেন প্রযোজক নিজেই এবং গীতিকার রাজিব।
ছবিটির মিউজিক সম্পর্কে প্রযোজক জানিয়েছেন যে,বর্তমান যুগের সিনেমার মিউজিকের তুলনায় এই ছবিটির জন্য একটু আলাদা ধরনের গান ও কথা প্রথম থেকেই ভাবা হয়েছিল যাতে বাংলা সঙ্গীত জগতে একটি রেকর্ড গড়তে পারে।রাখীর গলায় একটি অসাধারণ ঠুংরি এবং ইমনের গলায় একটি অনবদ্য রবীন্দ্রসঙ্গীত রয়েছে সিনেমাটিতে।
একবিংশ শতাব্দীতে মানুষের মধ্যে চিঠি লেখার একটি তুমুল প্রবণতা ছিল,যা হয়তো বর্তমান যুগে সোশ্যাল মিডিয়া আসার পর প্রায় অবলুপ্ত হয়ে গেছে বললেই চলে।সেই সময় মানুষের মনের কথা বা ভাব প্রকাশের একমাত্র মাধ্যম ছিল চিঠি লেখা।আধুনিক যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে গিয়ে মানুষ কোথাও না কোথাও এই অভ্যাসটি হারিয়ে ফেলছে।আজকালকার যুগের ছেলে-মেয়েরা তাদের নিজেদের কাজকর্মে এতটাই ব্যস্ত হয়ে পড়ে যে বাড়িতে থাকা বৃদ্ধ বাবা-মায়ের সাথে বসে জীবনের সুখ-দুঃখের কথা ভাগ করার সময় পায় না।ফলে তাদের সন্তানদের সময়ের অভাবে সেই বৃদ্ধ বাবা-মায়ের ঠাঁই হয় বৃদ্ধাশ্রমে।এইখানেই ছবিটির মূল প্রেখ্খাপট।
মৌবনী (ছবি : বুলান)
ছবিটিতে মমতা দেবী(লিলি চক্রবর্তী) যিনি প্রয়াত শিবনাথ ব্যানার্জির (সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়)স্ত্রী, তিনি তার স্বামীর দেওয়া শেষ চিঠি হাতে নিয়ে এতটাই মর্মাহত আবেগপ্রবণ হয়ে ওঠেন যে তিনি তার কান্না কিছুতেই চেপে রাখতে পারেন না।আজ তার মেয়ে ও জামাই সিদ্ধান্ত নেয় তারা তাদের এই বৃদ্ধ,অসহায় মাকে বৃদ্ধাশ্রমে রেখে চলে যাবে। মমতা দেবীর সেই ক্ষয়িত কিন্তু প্রাসাদতুল্য বাড়ির প্রতিটি ইঁটের সাথে জড়িয়ে রয়েছে বিভিন্ন স্মৃতি।আজ সেই বাড়িও চলে যাবে প্রোমোটারের হাতে ।ছবিটির কাহিনী বেদনাময় ও হৃদয়ছোঁয়া।‘পোস্ত’-র পরে ফের এই হিট জুটিকে ‘শেষ চিঠি’-তে দেখে দর্শক আনন্দ পাবে।
সিনেমাটিতে বেশ কিছু দৃশ্য শ্যুটিং হয়েছে কানাডায়।ছবিটির কাহিনী,চিত্রনাট্য,মিউজিক-এর মাধ্যমে সমাজে এক বিশেষ বার্তা পৌছাবে বলে জানিয়েছেন পরিচালক তন্ময় রায়।
-মৌমিতা দাস

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *